Skip Navigation | Accessibility

information, advice, guidance and learning materials in community languages

গনোরিয়া, ক্লামাডিয়া এবং সিফিলিস - এই রোগগুলির লক্ষন, চিকিত্সা এবং তথ্য
Gonorrhoea, Chlamydia and Syphilis Symptoms, treatment and facts

এই পাতাগুলিতে যে সকল তথ্য দেওয়া হয়েছে, সেগুলি কেবলমাত্র কয়েকটা দেশের জন্য নয়, পৃথিবীর সব দেশের ব্যাপারেই এগুলি খাটে। তবে এই তথ্যপত্রে কতকগুলি অংশ, যেমন - ‘সাহায্যের জন্য কোনখানে যেতে হবে’, ‘চিকিত্সা’ এবং ‘পরীক্ষা করানো’ কেবলমাত্র ইউ কের ক্ষেত্রেই খাটে।

গনোরিয়া

গনোরিয়া রোগ জীবানু/ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রামিত হয়। এটা যৌনমিলনের দ্বারা সংক্রামিত হয়ে থাকে এবং জরায়ুর সরু অংশে, মূত্রনালীতে, মলনালীতে এবং মলদ্বারে সংক্রামিত হয়।

লক্ষনগুলি এবং চিহ্নগুলি

যেদিন এই রোগ একজন থেকে আরেকজনের মধ্যে সংক্রামিত হয় ১দিন থেকে ১৪ দিনের মধ্যে এই সংক্রামনের লক্ষনগুলি দেখা দিতে পারে। এটাও সম্ভব হতে পারে যে একজন ব্যক্তির মধ্যে গনোরিয়ার সংক্রামন হয়েছে, কিন্তু কোন লক্ষন দেখা দেয়নি। মহিলাদের থেকে পুরুষদের মধ্যে এই লক্ষনগুলি বেশী লক্ষ্য করা যায়।

মহিলাদের

গনোরিয়ার লক্ষনগুলির মধ্যে থাকতে পারে:

  • যোনী স্রাবের পরিবর্তন। এই স্রাব পরিমানে বেশী হতে পারে, এর রং হলুদ বা হালকা সবুজ হতে পারে এবং এর ভিতরে খুব বেশী গন্ধ থাকতে পারে।
  • প্রস্রাব করার সময় ব্যথা বা জ্বালা হতে পারে।
  • মলনালীতে জ্বালা যন্ত্রনা এবং/অথবা স্রাব হতে পারে।

পুরুষদের

লক্ষনগুলির মধ্যে থাকতে পারে:

  • লিঙ্গ থেকে হলুদ বা সাদা স্রাব বের হয়
  • মলনালীতে জ্বালা যন্ত্রনা এবং/অথবা সাদা স্রাব বের হয়
  • শুক্রাশয়/টেসটিকল এবং মূত্রনালীর গ্রন্থি ফুলে যায়

গনোরিয়া কিভাবে একজনের শরীর থেকে আরেকজনের শরীরে প্রবেশ করে।

  • ভেতরে ঢুকিয়ে যৌনমিলনের দ্বারা (যখন লিঙ্গ যোনীর, মুখের অথবা মলদ্বারের ভিতরে ঢোকান হয়)।

এবং কম হয়:

  • বেড় দেওয়া (যেখানে একজন ব্যক্তি তার মুখ এবং জিহ্বা দ্বারা আরেকজন ব্যক্তির মলদ্বারকে উত্তেজিত করে)
  • একটি সংক্রামিত যোনীতে, মলদ্বারে অথবা মুখে আঙ্গুল ঢোকানো এবং এর পর সেই আঙ্গুল না ধুঁয়ে নিজের ভিতর ঢুকানো।

সাহায্যের জন্য কোথায় যেতে হবে

  • আপনার স্থানীয় এন এইচ এস এর যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকে। ইউকে তে আপনার নিকটতম যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকের বিস্তারিত বিবরন টেলিফোন বইয়ের জেনিটো ইউরিনারি মেডিসিন (জি ইউ এম(গাম)), সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ডিজিজেস্‌ (এস টি ডি) অথবা ভেনারেল ডিজিজেস্‌ (ভি ডি) অংশে পাবেন। অথবা আপনার স্থানীয় হাসপাতালে ফোন করে ‘স্পেশাল’ অথবা জি, ইউ এম(গাম) ক্লিনিকের কথা জিজ্ঞাসা করুন। যে সকল ওয়েবসাইটে আপনার নিকটতম ক্লিনিকের খবর দেয়, আমাদের সাহায্য এবং উপদেশের পাতা তার সঙ্গে যুক্ত।

আপনি সেখানে বিনামূল্যে গোপন উপদেশ এবং চিকিত্সা পাবেন। আপনি দেশের যে কোন জায়গায় যে কোন ক্লিনিকে যেতে পারবেন - আপনাকে আপনার স্থানীয় ক্লিনিকে না গেলেও চলবে - এবং আপনার ডাক্তার/জিপিকে দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে না। (যে সকল যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকগুলি এন এইচ এসের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেইগুলিতে সর্ব্বদা এন এইচ এসের ক্লিনিকে যে সকল বিশদ চিকিত্সার ব্যবস্থা আছে, সেগুলি হয়ত নাও পাওয়া যেতে পারে)।

আপনি সেখানে বিনামূল্যে গোপন উপদেশ এবং চিকিত্সা পাবেন। আপনি দেশের যে কোন জায়গায় যে কোন ক্লিনিকে যেতে পারবেন - আপনাকে আপনার স্থানীয় ক্লিনিকে না গেলেও চলবে - এবং আপনার ডাক্তার/জিপিকে দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে না। (যে সকল যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকগুলি এন এইচ এসের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেইগুলিতে সর্ব্বদা এন এইচ এসের ক্লিনিকে যে সকল বিশদ চিকিত্সার ব্যবস্থা আছে, সেগুলি হয়ত নাও পাওয়া যেতে পারে)।

  • আপনার নিজের ডাক্তার/জিপি
  • আপনি যদি ইউ কে তে বাস করেন, তাহলে www.playingsafely.co.uk তে

ওয়েবসাইটে গিয়ে সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ইনফেক্‌শন ক্লিনিকের বিস্তারিত খবর পাবেন।

  • আপনি যদি ইউ এস এ/আমেরিকায় বাস করেন তাহলে http://herpes-coldsores.com/support/std clinic us.htm ওয়েবসাইটে যান। এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পর্টুরিকো এবং ইন্ডিয়ার সেক্সুয়ালী ট্র্যান্সমিটেড ডিজিজ/যৌন সংক্রামক রোগের ক্লিনিকগুলির খবর পাবেন।

গনোরিয়ার পরীক্ষা

  • আপনার জননেন্দ্রিয়ের এলাকা একজন ডাক্তার বা নার্স পরীক্ষা করে দেখবেন।
  • তুলা বা স্পঞ্জ সোয়াব ব্যবহার করে যে সকল জায়গায় সংক্রামন হয়েছে যেমন জরায়ুর সরু অংশ, মুত্রনালী, মলনালী এবং গলা সেখান থেকে নমুনা নেওয়া হবে।
  • মহিলাদের শ্রোনি/পেলভিকের ভেতরে পরীক্ষা করা হবে।
  • প্রস্রাবের নমুনাও নেওয়া হতে পারে।

এই পরীক্ষা গুলি বেদনাদায়ক নয় তবে কখনও কখনও হয়ত একটু অস্বস্তি বোধ হতে পারে।

আপনি যদি মলনালীতে যৌনসঙ্গম করে থাকেন, তাহলে সেটা ডাক্তারকে বলা জরুরী, যাতে তিনি মলদ্বার থেকে নমুনা নিতে পারেন। এ ছাড়া ও আপনি যদি মৌখিক যৌন সঙ্গম করে থাকেন, তাহলে সেটাও ডাক্তারকে বলুন।

রোগ নির্ণয় এবং চিকিত্সা

পরীক্ষা করার সময় যে নমুনা নেওয়া হয়, সেই নমুনাগুলি মাইক্রোস্কোপের দ্বারা, গনোরিয়া আছে কি না সেটা পরীক্ষা করে দেখা হয়। কিছু কিছু ক্লিনিকে পরীক্ষার ফল সঙ্গে সঙ্গেই জানিয়ে দেওয়া হয়। দ্বিতীয় নমুনাটি রসায়নগারে/ল্যাবরোটারিতে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সাধারনত এই পরীক্ষার ফল এক সপ্তাহের ভিতর জানা যায়। এই রোগের চিকিত্সা সহজ এবং এই চিকিত্সা করানো প্রয়োজনীয়। আপনাকে এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ দেওয়া হবে। এই এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ হয় ট্যাবলেট বা তরল ঔষধ মুখ দিয়ে খাওয়ার জন্য অথবা ইনজেকশন হিসাবে দেওয়া হবে।

আপনার যদি এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ সহ্য না হয় (তার মানে যদি এলার্জি থাকে) এটাও হয়ত সম্ভব যে আপনি সন্তান সম্ভবা। এটা জরুরী যে আপনি আপনার ডাক্তারকে সেটা বলেন। এটাও অত্যন্ত জরুরী যে আপনি আপনার চিকিত্সা সম্পূর্ন করেন।

আপনাকে যদি বলা হয় যে আপনার গনোরিয়া আছে, তাহলে আপনাকে হয়ত একজন স্বাস্থ্যের উপদেশদাতার সঙ্গে দেখা করতে বলা হবে। তিনি আপনাকে এই সংক্রামন রোগ সম্বন্ধে বিস্তারিত খবর দেবেন এবং আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তার জবাব দেবেন। স্বাস্থ্যের উপদেশদাতা আপনাকে আপনার যৌন সঙ্গি বা সঙ্গীদের সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করবেন, যাতে তারাও এই পরীক্ষা এবং প্রয়োজন পড়লে চিকিত্সাও করাতে পারেন।

যতদিন পর্যন্ত আপনি আবার ক্লিনিকে গিয়ে পরীক্ষা না করাচ্ছেন এবং ডাক্তার আপনালে বলবেন যে আপনার এই সংক্রামক রোগ চলে গেছে, ততদিন পর্যন্ত আপনার ভেতরে ঢুকিয়ে যৌন মিলন করা উচিত নয়। ডাক্তার এবং স্বাস্থ্যের উপদেশদাতারা আপনাকে কোন ধরনের যৌন মিলন নিরাপদ সে সম্বন্ধে উপদেশ দেবেন।

চিকিত্সা চালিয়ে যাওয়া

গনোরিয়ার চিকিত্সা যখন সম্পূর্ন হয়ে যাবে, তখন আপনার ক্লিনিকে অথবা আপনার ডাক্তার/জিপির কাছে আরেকবার পরীক্ষা করানোর জন্য যাওয়া উচিত।

কতকগুলি বিশেষ ধরনের এ়ন্টিবায়োটিকস্‌, কয়েক রকমের গনোরিয়ার ক্ষেত্রে কার্যকরী হয় না। বিশেষত দেশের বাইরে থেকে যদি এই রোগ আপনার শরীরে ঢোকে। যদি এরকম হয় তাহলে আবার পরীক্ষা করে দেখা হবে যে আপনি এই সংক্রামন থেকে মুক্ত হয়েছেন কি না। যদি না হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে ভিন্ন ধরনের এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ দেওয়া হবে।

জটিলতাগুলি

মহিলাদের

মহিলাদের গনোরিয়ার যদি সময়মত চিকিত্সা না করা হয় তাহলে এর থেকে পেলভিক ইনফ্ল্যামাটোরি ডিজিজ (PID)/শ্রোনির উত্তেজক রোগ হতে পারে। এই রোগ হওয়ার মানে হল যে ফেলোপাইন টিউবে উত্তেজনা । এর ফলে জ্বর, তলপেটে ব্যথা এবং পিঠে ব্যথা হতে পারে। যৌন সঙ্গম করার সময় কষ্ট হতে পারে। পি আই ডির(PID) ফলে একজন মহিলা বন্ধ্যা হয়ে যেতে পারেন অথবা তার একটোপিকপ প্রেগনেন্সি/ফেলোপাইন টিউবের ভেতরে বাচ্চা হতে পারে। পি আই ডির(PID) ব্যপারে অন্যান্য তথ্যপত্র পাওয়া যায়।

আপনার যদি গনোরিয়া থাকে এবং আপনি সন্তান সম্ভবা হন, তাহলে সন্তানের যখন জন্ম হবে তখন আপনার কাছ থেকে আপনার সন্তানের মধ্যে এই রোগ বিস্তার করতে পারে। এ ছাড়াও আপনার সন্তানের গনকোকাল আই ইনফেক্‌শন/গনোরিয়া ঘটিত চোখের রোগ নিয়ে জন্মাতে পারে। এই রোগকে অবশ্যই এ়ন্টিবায়োটিক্‌স দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে, কারন এই অবস্থা থেকে চোখ অন্ধ হয়ত যেতে পারে। তবে সন্তানের জন্মের আগেই চিকিত্সা করানো আপনার পক্ষে সবচাইতে ভাল।

পুরুষগন

গনোরিয়ার ফলে শুক্রাশয়ে/টেস্টিকলে এবং মুত্রনালীর গ্রন্থিতে/প্রস্টেট গ্ল্যান্ড ফুলে যেতে পারে এবং ব্যথা হতে পারে। এর চিকিত্সা না করালে মূত্রনালী সরু হয়ে যেতে এবং সেখানে ফোড়া হতে পারে।

গনোরিয়া একবার চিকিত্সার দ্বারা সম্পূর্ন সুস্থ হয়ে গেলে, আপনার পুনরায় সংক্রামন না হলে, এই রোগ হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

এটা মনে রাখবেন যে চিকিত্সার পর, যৌন মিলনের সময় কনডোম ব্যবহার করলে, আপনার নিজের যৌন সংক্রামন রোগ হওয়া বা অন্যের মধ্যে সেই রোগ বিস্তার করার ঝুঁকি কম থাকে।

ক্লামাডিয়া

ক্লামাডিয়া হচ্ছে সবচাইতে সাধারন রোগজীবানু ঘটিত যৌন সংক্রামক রোগ, যেটাকে সহজেই চিকিত্সা করানো যায়। যদি এর চিকিত্সা ঠিকমত না করানো হয়, তাহলে জীবনের শেষের দিকে অনেক কঠিন সমস্যা দেখা দিতে পারে (’জটিলতার’ অংশটি দেখুন)।

ক্লামাডিয়া মহিলাদের জরায়ুর সরু অংশে সংক্রামিত হয়। পুরুষদের এবং মহিলাদের মূত্রনালী, মলদ্বার এবং চোখে সংক্রামন হতে পারে। কখনও কখনও ক্লামাডিয়া শরীরের অন্য অংশেও থাকতে পারে যেমন - গলা, ফুসফুস,এবং লিভার।

চিহ্ন এবং লক্ষনগুলি

মহিলাদের

সংক্রামনের লক্ষনগুলি যে কোন সময় দেখা দিতে পারে। প্রায়শই এই রোগজীবানুর আক্রমনের ১ থেকে ৩ সপ্তাহের ভিতরে এগুলি দেখা দিতে পারে। তবে এটাও হতে পারে যে অনেকদিন পর্যন্ত এই রোগের কোন লক্ষন দেখা দেয় না। বেশীরভাগ মহিলা, যাদের মধ্যে ক্লামাডিয়ার সংক্রামন হয়েছে, তাদের মধ্যে রোগের কোন লক্ষন দেখা যায় না। সম্ভবত: লক্ষনগুলি হল:

  • যোনীর স্রাব একটু বেশী হয় - কারন হল জরায়ুর সরু অংশ ফুলে যায়
  • প্রস্রাব বেশী হয়/প্রস্রাব করার সময় ব্যথা হয়।
  • তলপেটে ব্যথা
  • যৌনমিলনের সময় ব্যথা
  • মাসিক অনিয়মিতভাবে হয়।
  • চোখ ফুলে যায় এবং জ্বালা যন্ত্রনা হয় (যদি চোখে এই রোগের সংক্রামন হয়ে থাকে)

পুরুষদের

সংক্রামনের লক্ষন যে কোন সময় দেখা দিতে পারে। প্রায়শই, এটা রোগজীবানুর আক্রমনের ১ থেকে ৩ সপ্তাহের ভিতর দেখা দেয়। তবে এটাও হতে পারে যে অনেকদিন পর্যন্ত এই রোগের লক্ষন প্রকাশ পায় না। মহিলাদের থেকে পুরুষদের ভিতর এই লক্ষন বেশী প্রকাশ পায়। তবে পুরুষদের অনেকের মধ্যেই কোন লক্ষন থাকে না। সাধারনত; এই লক্ষনগুলি হল:

  • লিঙ্গ থেকে স্রাবের ক্ষরন হয়। এটা হতে পারে সাদা বা ঘোলাটে রং এবং পাতলা। এটা ভিতরের কাপড়ে দাগ ফেলতে পারে।
  • প্রস্রাবের সময় ব্যথা হয় এবং/অথবা জ্বালা করে।
  • চোখ ফুলে যায় এবং জ্বালা যন্ত্রনা হয়। (যদি চোখে সংক্রামন হয়) মলদ্বারে ক্লামাডিয়া হলে লক্ষন খুব কমই দেখা যায়।

ক্লামাডিয়া কিভাবে একজনের শরীর থেকে আরেকজনের শরীরে বিস্তার লাভ করে

ক্লামাডিয়া বিস্তার লাভ করতে পারে:

  • যে ব্যক্তির শরীরে এই রোগ আছে তার সঙ্গে যৌনমিলন করলে।
  • সন্তানের জন্মের সময় মায়ের শরীর থেকে বাচ্চার শরীরে
  • কখনও কখনও এই সংক্রামন হয় আঙ্গুল দ্বারা জননেন্দ্রিয় থেকে চোখে।

সাহায্যের জন্য কোথায় যেতে হবে

  • আপনার স্থানীয় এন এইচ এস এর যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকে। ইউকে তে আপনার নিকটতম যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকের বিস্তারিত বিবরন টেলিফোন বইয়ের জেনিটো ইউরিনারি মেডিসিন (জি ইউ এম(গাম)), সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ডিজিজেস্‌ (এস টি ডি) অথবা ভেনারেল ডিজিজেস্‌ (ভি ডি) অংশে পাবেন। অথবা আপনার স্থানীয় হাসপাতালে ফোন করে ‘স্পেশাল’ অথবা জি, ইউ এম(গাম) ক্লিনিকের কথা জিজ্ঞাসা করুন। যে সকল ওয়েবসাইটে আপনার নিকটতম ক্লিনিকের খবর দেয়, আমাদের সাহায্য এবং উপদেশের পাতা তার সঙ্গে যুক্ত।

আপনি সেখানে বিনামূল্যে গোপন উপদেশ এবং চিকিত্সা পাবেন। আপনি দেশের যে কোন জায়গায় যে কোন ক্লিনিকে যেতে পারবেন - আপনাকে আপনার স্থানীয় ক্লিনিকে না গেলেও চলবে - এবং আপনার ডাক্তার/জিপিকে দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে না। (যে সকল যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকগুলি এন এইচ এসের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেইগুলিতে সর্ব্বদা এন এইচ এসের ক্লিনিকে যে সকল বিশদ চিকিত্সার ব্যবস্থা আছে, সেগুলি হয়ত নাও পাওয়া যেতে পারে)।

আপনি সেখানে বিনামূল্যে গোপন উপদেশ এবং চিকিত্সা পাবেন। আপনি দেশের যে কোন জায়গায় যে কোন ক্লিনিকে যেতে পারবেন - আপনাকে আপনার স্থানীয় ক্লিনিকে না গেলেও চলবে - এবং আপনার ডাক্তার/জিপিকে দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে না। (যে সকল যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকগুলি এন এইচ এসের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেইগুলিতে সর্ব্বদা এন এইচ এসের ক্লিনিকে যে সকল বিশদ চিকিত্সার ব্যবস্থা আছে, সেগুলি হয়ত নাও পাওয়া যেতে পারে)।

  • আপনার নিজের ডাক্তার/জিপি
  • আপনি যদি ইউ কে তে বাস করেন, তাহলে www.playingsafely.co.uk তে

ওয়েবসাইটে গিয়ে সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ইনফেক্‌শন ক্লিনিকের বিস্তারিত খবর পাবেন।

  • আপনি যদি ইউ এস এ/আমেরিকায় বাস করেন তাহলে http://herpes-coldsores.com/support/std clinic us.htm ওয়েবসাইটে যান। এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পর্টুরিকো এবং ইন্ডিয়ার সেক্সুয়ালী ট্র্যান্সমিটেড ডিজিজ/যৌন সংক্রামক রোগের ক্লিনিকগুলির খবর পাবেন।

ক্লামাডিয়ার পরীক্ষা

  • আপনার জননেন্দ্রিয়ের এলাকা একজন ডাক্তার বা নার্স পরীক্ষা করে দেখবেন।
  • তুলা বা স্পঞ্জ সোয়াব ব্যবহার করে, যে সকল জায়গায় সংক্রামন হয়েছে সেখান থেকে নমুনা নেওয়া হবে।
  • মহিলাদের শ্রোনি/পেলভিকের ভেতরে পরীক্ষা করা হবে।
  • পুরুষদের শুক্রাশয়/টেস্টিকল বাইরের থেকে পরীক্ষা করে দেখা হবে যে সেগুলি স্বাস্থ্যকর অবস্থায় আছে
  • প্রস্রাবের নমুনা নেওয়া হবে।

এই পরীক্ষা গুলি বেদনাদায়ক নয় তবে কখনও কখনও হয়ত একটু অস্বস্তিকর হতে পারে।

ক্লামাডিয়ার সংক্রামনের কয়েকদিনের মধ্যেই, আপনার কোন লক্ষন প্রকাশ পাবার আগেই এটা পরীক্ষায় ধরা পড়বে

রোগ নির্ণয় এবং চিকিত্সা

পরীক্ষা করার সময় যে নমুনা গুলি নেওয়া হবে, সেগুলিকে ল্যাবরেটরিতে বা রসায়নাগারে পরীক্ষা করবার জন্য পাঠানো হবে। এই পরীক্ষার ফলাফল সাধারনত: এক সপ্তাহের ভিতরেই পাওয়া যায়।

একবার যখন ক্লামাডিয়া আছে বলে নির্ণয় করা হয়ে থাকে, তারপর এর চিকিত্সা সহজ এবং কার্যকরী। আপনাকে এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ ট্যাবলেট দেওয়া হবে।

আপনার যদি এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ সহ্য না হয় (তার মানে যদি এলার্জি থাকে) এটাও হয়ত সম্ভব যে আপনি সন্তান সম্ভবা। এটা জরুরী যে আপনি আপনার ডাক্তারকে সেটা বলেন। এটাও অত্যন্ত জরুরী যে আপনি আপনার চিকিত্সা সম্পূর্ন করেন।

এটা অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য যে আপনি ক্লামাডিয়ার চিকিত্সা সম্পূর্ন করেন। যদি এই চিকিত্সা মাঝখানে বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে এটা আবার প্রথম থেকে আরম্ভ করতে হবে।

আপনাকে যদি বলা হয় যে আপনার ক্লামাডিয়া আছে, তাহলে আপনাকে হয়ত একজন স্বাস্থ্যের উপদেশদাতার সঙ্গে দেখা করতে বলা হবে। তিনি আপনাকে এই সংক্রামন রোগ সম্বন্ধে বিস্তারিত

খবর দেবেন এবং আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তার জবাব দেবেন। স্বাস্থ্যের উপদেশদাতা আপনাকে আপনার যৌন সঙ্গি বা সঙ্গীদের সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করবেন, যাতে তারাও এই পরীক্ষা এবং প্রয়োজন পড়লে চিকিত্সাও করাতে পারেন।

যতদিন পর্যন্ত আপনি আবার ক্লিনিকে গিয়ে পরীক্ষা না করাচ্ছেন এবং ডাক্তার আপনাকে বলবেন যে আপনার এই সংক্রামক রোগ চলে গেছে, ততদিন পর্যন্ত আপনার ভেতরে ঢুকিয়ে যৌন মিলন করা উচিত নয়।

চিকিত্সা চালিয়ে যাওয়া

এটা জরুরী যে আপনার চিকিত্সা সম্পুর্ন হয়ে যাওয়ার পর, আপনার সক্রামন পুরাপুরিভাবে চলে গেছে কি না সেটা পরীক্ষা করানোর জন্য ক্লিনিকে অথবা আপনার ডাক্তার/জিপির কাছে আরেকবার পরীক্ষা করানোর জন্য যাওয়া উচিত।

জটিলতাগুলি

মহিলাদের

ক্লামাডিয়ার যদি সময়মত চিকিত্সা না করা হয় তাহলে এর থেকে পেলভিক ইনফ্ল্যামাটোরি ডিজিজ (PID)/শ্রোনির উত্তেজক রোগ হতে পারে। এই রোগ হওয়ার মানে হল যে ফেলোপাইন টিউব (যে টিউবের ভেতর দিয়ে ডিম্ব ভ্রমন করে জরায়ুতে পৌছায়) ফুলে যায়। পি আই ডির ফলে একজন মহিলা বন্ধ্যা হয়ে যেতে পারেন। বহু ক্ষেত্রেই এই বন্ধ্যাত্বের কারন হচ্ছে ক্লামাডিয়া।

  • যদি কোন মহিলার গর্ভবতী অবস্থায় ক্লামাডিয়া হয়, তাহলে তার একটোপিক প্রেগন্যান্সি (জরায়ুর বাইরে ফেলোপাইন টিউবে গর্ভধারন) অথবা সন্তানের অকালে বা গর্ভধারনের পুরা সময়ের আগেই জন্ম হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই সংক্রামন সন্তানের মধ্যে ছড়াতে পারে এবং তার চোখে বা ফুসফুসে সংক্রামন হতে পারে। গর্ভানবস্থায় ক্লামাডিয়ার চিকিত্সা নিরাপদ ভাবে করা যেতে পারে।
  • ক্লামাডিয়ায় ভোগার দীর্ঘকালীন ফল হল শ্রোনীতে ব্যথা হওয়া।

পুরুষদের

ক্লামাডিয়া হওয়ার ফলে পুরুষদের মধ্যে জঠিলতা সাধারনত দেখা দেয় না । তবে এটার ফলে শুক্রাশয়গুলিত ফুলে যেতে এবং জ্বালা যন্ত্রনা হতে পারে, এবং এর ফলে অনুর্ব্বরতার (সন্তান না হওয়া)

সৃষ্টি হতে পারে।

পুরুষদের এবং মহিলাদের

  • ক্লামাডিয়ার ফলে রেইটার সিন্ড্রোম হতে পারে। এটা হলে চোখের এবং হাড্ডির জোড়াতে ফোলা এবং জ্বালা যন্ত্রনা হতে পারে এবং কখনও কখনও পায়ের তলায় এবং জননেন্দ্রিয়তে ফুসকুরি হতে পারে।
  • ক্লামাডিয়ার ফলে এপেন্ডিসাইটিস্‌
  • (এপেন্ডিকস্‌ ফুলে যাওয়।) হতে পারে। মনে রাখবেন যে চিকিত্সার পরে যৌন মিলনের সময় কনডম ব্যবহার করলে যৌন রোগ হওয়া বা অন্য ব্যক্তির শরীরে যৌন রোগ ছড়ানোর ঝুকি অনেক কমে যায়।

সিফিলিস

ইউ কে তে সিফিলিস খুব বেশী হয় না। তবে অন্যান্য কতকগুলি দেশে এই রোগ হওয়া খুবই সাধারন। এটা হচ্ছে রোগজীবানু দ্বারা সংক্রামিত য়। এই রোগ যৌন মিলনের দ্বারা একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে যায়। তবে এটা গর্ভাবস্থায় মায়ের থেকে সন্তানের মধ্যে সংক্রামিত হতে পারে।

চিহ্ন এবং লক্ষনগুলি

এই চিহ্ন এবং লক্ষনগুলি পুরুষ এবং মহিলাদের মধ্যে একই রকমের। এই লক্ষনগুলি ধরা কঠিন

এবং যে ব্যক্তির এই রোগ আছে তার সঙ্গে যৌনমিলন করবার পর তিন মাস পর্যন্ত সময়ের ভিতর

এই লক্ষনগুলি দেখা দিতে পারে। সিফিলিসের বিভিন্ন স্তর আছে। প্রথম এবং দ্বিতীয় স্তর খুব বেশী সংক্রামক।

প্রাথমিক স্তর

শরীরের যে স্থান দিয়ে সিফিলিসের রোগজীবানু শরীরের ভিতর প্রবেশ করেছে, সেখানে একটা বা দুইটা গুটি দেখা দিতে পারে। এগুলিতে কোন ব্যথা থাকে না। সাধারনত: ২১ দিন পরে আপনি হয়ত সেগুলি লক্ষ্য করতে পারেন অথবা লক্ষ্য নাও করতে পারেন

এই গুটিগুলি শরীরের যে কোন স্থানে দেখা দিতে পারে। তবে প্রধানত: দেখা দেয়

  • স্ত্রী যোনীদ্বারে, ভগাঙ্কুরে (ক্লিটোরিস্‌) এবং মূত্রনালীর দরজার চারপাশে।
  • মহিলাদের জরায়ুর সরু অংশে এবং পুরুষদের লিঙ্গ এবং সামনের চামড়ায়।
  • পুরুষ এবং মহিলা দুজনেরই মলদ্বার এবং মুখের চারপাশে।

এই গুটিগুলি খুবই সংক্রামক এবং এইগুলি সারতে ২-৬ সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

দ্বিতীয় স্তর

যদি এই সিফিলিসের কোন চিকিত্সা না করা হয়, তাহলে এই ফুসকুরি বের হবার ৩ থেকে ৬ সপ্তাহ পর এই দ্বিতীয় স্তরের সৃষ্টি হয়। এর লক্ষনগুলি হল:

  • সম্পূর্ন শরীরে বা শরীরের জায়গায় জায়গায় ফুসকুরি বেরোয়। এই ফুসকুরিগুলি চুলকায় না।
  • মহিলাদের যৌন দ্বারে এবং পুরুষ মহিলা দুজনেরই মলদ্বারে চেপ্টা আঁচিলের

মত মাংসপিন্ড গজায়।

  • মনে হয় ফ্লু হয়েছে। ক্লান্ত বোধ হয়, ক্ষিদে পায় না, এর সঙ্গে লালাগ্রন্থি/গ্ল্যান্ডগুলি

ফুলে যায় (এই অবস্থা কয়েক সপ্তাহ বা কয়েক মাস ধরে চলতে পারে)।

  • জিহ্বায় বা মুখের তালুতে সাদা সাদা দাগ দেখা যায়।।
  • মাথার চুল জায়গায় জায়গায় পড়ে যায়

যখন এই লক্ষনগুলি দেখা দেয়, তখন তার মানে হল যে সিফিলিস এই অবস্থায় খুবই সংক্রামক এবং হয়ত যৌনমিলনের দ্বারা সঙ্গীর ভিতরেও এই রোগ ছড়িয়ে গেছে।

এই প্রথম দুই স্তরের যে কোন সময়েই চিকিত্সা দ্বারা সিফিলিসের সংক্রামনকে সারিয়ে তোলা যায়।

গুপ্ত অবস্থার স্তর

গুপ্ত অবস্থার সিফিলিস বলতে বোঝায়, যে সিফিলিসের চিকিত্সা করা হয় নি। এই সিফিলিসের লক্ষন থাকে না অথবা সংক্রামনের কোন চিহ্নও দেখা যায় না। কেবলমাত্র রক্ত পরীক্ষার দ্বারা এই অবস্থার সনাক্ত করা যায় । এই অবস্থার যদি চিকিত্সা করা না হয়, তাহলে সিমটোমেটিক লেট সিফিলিস/ লক্ষনমূলক বিলম্বিত সিফিলিসের অবস্থায় দাড়াতে পারে। সাধারনত ১০ বত্সরেরও বেশী সময়ের পর এই অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে। সিফিলিস এই অবস্থায় যদি পৌঁছায়, তাহলে সেটা হৃদয়ের/হার্টের উপর প্রভাব ফেলতে পারে এবং সম্ভবত এই প্রভাব শরীরের স্নায়ুগুলি বা নার্ভাস সিস্টেমের উপরেও পড়তে পারে।

গুপ্ত অবস্থার স্তরেও চিকিত্সা দ্বারা সিফিলিসকে সারানো যায়। তবে চিকিত্সা আরম্ভ হওয়ার আগে যদি হৃদয়কে/হার্টকে বা স্নায়ুগুলিকে /নার্ভাস সিস্টেমেকে খারাপ করে দেয় তাহলে সেই অবস্থা হয়ত বদলানো যাবে না।

কিভাবে সিফিলিস একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে যায়

নিম্নলিখিতভাবে এই সংক্রামন হতে পারে:

  • যার এই রোগ আছে তার সঙ্গে যৌনমিলনের দ্বারা।
  • মায়ের থেকে গর্ভের সন্তানের শরীরের মধ্যে যায়

সাহায্যের জন্য কোথায় যেতে হবে

  • আপনার স্থানীয় এন এইচ এস এর যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকে। ইউকে তে আপনার নিকটতম যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকের বিস্তারিত বিবরন টেলিফোন বইয়ের জেনিটো ইউরিনারি মেডিসিন (জি ইউ এম(গাম)), সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ডিজিজেস্‌ (এস টি ডি) অথবা ভেনারেল ডিজিজেস্‌ (ভি ডি) অংশে পাবেন। অথবা আপনার স্থানীয় হাসপাতালে ফোন করে ‘স্পেশাল’ অথবা জি, ইউ এম(গাম) ক্লিনিকের কথা জিজ্ঞাসা করুন। যে সকল ওয়েবসাইটে আপনার নিকটতম ক্লিনিকের খবর দেয়, আমাদের সাহায্য এবং উপদেশের পাতা তার সঙ্গে যুক্ত।

আপনি সেখানে বিনামূল্যে গোপন উপদেশ এবং চিকিত্সা পাবেন। আপনি দেশের যে কোন জায়গায় যে কোন ক্লিনিকে যেতে পারবেন - আপনাকে আপনার স্থানীয় ক্লিনিকে না গেলেও চলবে - এবং আপনার ডাক্তার/জিপিকে দিয়ে চিকিত্সা করাতে হবে না। (যে সকল যৌন স্বাস্থ্য ক্লিনিকগুলি এন এইচ এসের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেইগুলিতে সর্ব্বদা এন এইচ এসের ক্লিনিকে যে সকল বিশদ চিকিত্সার ব্যবস্থা আছে, সেগুলি হয়ত নাও পাওয়া যেতে পারে)।

  • আপনার নিজের ডাক্তার/জিপি
  • আপনি যদি ইউ কে তে বাস করেন, তাহলে www.playingsafely.co.uk তে

ওয়েবসাইটে গিয়ে সেক্সুয়ালী ট্রান্সমিটেড ইনফেকশন ক্লিনিকের বিস্তারিত খুঁজে পাবেন।

  • আপনি যদি ইউ এস এ/আমেরিকায় বাস করেন তাহলে www.unspeakabl.com/locatr/index.jsp ওয়েবসাইটে দেখুন

সিফিলিস নির্ণয় করার পরীক্ষা

সাধারনত: নিম্নলিখিত পরীক্ষাগুলি ক্লিনিকে করা হবে:

  • রক্তের নমুনা নেওয়া হবে।
  • আপনার যদি ফুসকুরি থাকে, তাহলে সেখান থেকে রস নেওয়া হবে এবং

সেটাকে মাইক্রোস্কোপ দ্বারা পরীক্ষা করা হবে।

  • আপনার জননেন্দ্রিয় এবং সম্পূর্ন শরীর ডাক্তার পরীক্ষা করে দেখবেন।
  • যে কোন ফুসকুরি থেকে তুলা বা স্পঞ্জ সোয়াব দিয়ে নমুনা নেওয়া হবে
  • মহিলাদের জননযন্ত্রের ভিতরও পরীক্ষা করে দেখা হবে।
  • প্রস্রাবের নমুনা নেওয়া হবে।

এই পরীক্ষা গুলি বেদনাদায়ক নয় তবে কখনও কখনও হয়ত একটু অস্বস্তিকর হতে পারে।

আপনার যখনই মনে হবে যে আপনি সিফিলিসের সংস্পর্শে এসেছেন, তখনই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই পরীক্ষা করাতে পারেন।

রোগ নির্ণয় এবং চিকিত্সা

পরীক্ষা করার সময় যে নমুনাগুলি নেওয়া হয়েছিল, সেই নমুনাগুলি মাইক্রোস্কোপ দ্বারা সংক্রামণ আছে কি না সেটা পরীক্ষা করে দেখা হয়। নমুনাগুলিকে রসায়নাগারে/ল্যাবরোটারিতে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সাধারনত এই পরীক্ষার ফল এক সপ্তাহের ভিতর জানা যায়।

আপনাকে যদি বলা হয় যে আপনার সিফিলিস আছে, তাহলে আপনাকে হয়ত একজন স্বাস্থ্যের উপদেশদাতার সঙ্গে দেখা করতে বলা হবে। তিনি আপনাকে এই সংক্রামন সম্বন্ধে বিস্তারিত খবর দেবেন এবং আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তার জবাব দেবেন। স্বাস্থ্যের উপদেশদাতা আপনাকে আপনার যৌন সঙ্গি বা সঙ্গীদের সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করবেন, যাতে তারাও এই পরীক্ষা এবং প্রয়োজন পড়লে চিকিত্সাও করাতে পারেন।

যদি সন্দেহ করা হয় যে আপনার সিফিলিস সংক্রামনের প্রাথমিক স্তরে আছে তাহলে আপনার, মৌখিক, যোনী এবং মলদ্বার দ্বারা যৌনমিলন করা উচিত নয়। যতদিন পর্যন্ত চিকিত্সা সম্পূর্ন না হয়, ততদিন পর্যন্ত আপনার এবং আপনার সঙ্গীর ভিতরে কোন রকম যৌনমিলন করা উচিত নয় এই কারনে, যাতে ফুসকুরিগুলির সঙ্গে তার কোন রকমের যোগাযোগ না হয়। সাধারনত: সিফিলিসের চিকিত্সা করা হয় ২ সপ্তাহ ধরে পেনিসিলিন ইনজেকশনের দ্বারা অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ ট্যাবলেট বা ক্যাপসুল দিয়ে।

আপনার যদি এ়ন্টিবায়োটিকস্‌ সহ্য না হয় (তার মানে যদি এলার্জি থাকে) এটাও হয়ত সম্ভব যে আপনি সন্তান সম্ভবা। এটা জরুরী যে আপনি আপনার ডাক্তারকে সেটা বলেন। এটাও অত্যন্ত জরুরী যে আপনি আপনার চিকিত্সা সম্পূর্ন করেন। চিকিত্সা যদি মাঝখানে বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে হয়ত এই চিকিত্সা আবার প্রথম থেকে আরম্ভ করতে হবে।

সিফিলিসের চিকিত্সা সম্পূর্ন হওয়ার পর আপনাকে নিয়মিতভাবে কিছুদিন পর পর রক্ত পরীক্ষার

জন্য যেতে হবে।

গর্ভাবস্থা এবং সিফিলিস

ইউ কে তে সব গর্ভবতী মহিলারা যখন এন্টি-নেটাল ক্লিনিকে যান তখন রক্ত পরীক্ষা করে তাদের সিফিলিস আছে কিনা দেখা হয়। যদি সিফিলিস পাওয়া যায় তাহলে গর্ভবতী অবস্থাতেও নিরাপদ ভাবে এই রোগের চিকিত্সা করা যায় এবং এতে গর্ভের সন্তানের কোন ক্ষতি হয় না। যদি গর্ভবতী মহিলারদের চিকিত্সা না হয়, তাহলে তিনি সিফিলিসের সংক্রামন গর্ভের সন্তানের মধ্যে বিস্তার করতে পারেন। কোন কোন ক্ষেত্রে এর ফলে গর্ভপাত বা মৃত সন্তানের জন্ম হতে পারে।

সাফল্যজনকভাবে সিফিলিসের চিকিত্সা করার পর, যদি আপনি আবার এই রোগের দ্বারা সংক্রামিত না হন, তাহলে এই রোগ আর হবে না। তবে ভবিষ্যতে কোন রক্ত পরীক্ষায় (যেমন ইমিগ্রশনের ব্যাপারে) আপনার এই রোগ নেই বলে প্রমান হলে ক্লিনিক থেকে এ ব্যাপারে সার্টিফিকেট, যেটাতে বলা থাকবে যে আপনার এই রোগের চিকিত্সা করা হয়েছে, সেটা নিতে ভুলবেন না।

মনে রাখবেন, চিকিত্সার পর যৌনমিলনের সময় কনডোম ব্যবহার করলে এই রোগের দ্বারা আক্রান্ত হওয়া বা অন্যদের আপনার দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

অন্যান্য যৌন সংক্রামক রোগের বিষয়ে খবর - যার ভিতর থাকে এই রোগগুলি সম্বন্ধে নানারকমের হিসাব/স্ট্যাটিসটিকস্‌ এবং তথ্যপত্র, AVERT.org ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়।

This document was provided by AVERT, last updated July 26, 2005. www.avert.org.uk